চন্দ্রযান-২ নিয়ে টান টান উত্তেজনায় ইসরোর কন্ট্রোল রুম!

301
চন্দ্রযান-২ এর চিন্তায় খাওয়াদাওয়া ছেড়ে দিয়েছেন ইসরোর কন্ট্রোল রুম। কেন দেখে নিন

চন্দ্রযান-২ সফল উৎক্ষেপণ হয়ে গেছে। আমরা নিশ্চিন্তায় আছি। কিন্তু ঐদিকে ইসরোর কন্ট্রোল রুমে সবার উত্তেজনা তুঙ্গে।খাওয়া-দাওয়া বন্ধ করে তারা দাঁতে দাঁত চেপে কাজ করছে। একটু ভুলচুক তো ১০০০ কোটি টাকা জলে। তাই কন্ট্রোল রুমে চিন্তার ছায়া।

আগামী ২০ আগষ্ট পর্যন্ত চিন্তা , আর তারপর কিছুদিন চিন্তামুক্ত ও ঠিক তারপরেই আবার চিন্তা। ডিউটি শেষ করে বাড়িতে গিয়েও চিন্তার ছাপ, চিন্তায় ঘুম আসছে না বিজ্ঞানীদের। এই কন্ট্রোল রুম থেকেই চন্দ্রযান-২ কে নিয়ন্ত্রণ করছে তারা। তাদের এক বিজ্ঞানী জানিয়েছেন, চাঁদের কক্ষপথে না প্রবেশ করা পর্যন্ত চিন্তা থাকছেই। আর তারপরেও ল‍্যান্ডিং নিয়ে আবার চিন্তা। খাওয়া বন্ধ আমাদের। শিফটের পর শিফট চেঞ্জ হচ্ছে কিন্তু সবার মুখেই চিন্তার ছাপ।

সংবাদ মাধ‍্যমগুলো, নাসা সহ আরও বড়ো বড়ো গবেষণা কেন্দ্র গুলোর সাথে কথা বলেছে, তাদের বিজ্ঞানীরা বলছে , যে ভারতের পাঠানো চন্দ্রযান-২ যতদিন না চাঁদের কক্ষপথে পৌছাচ্ছে, ততদিন চিন্তা থাকবেই। আর জিএসএলভির শক্তি যদি আরও বেশী থাকত তাহলে আরও তাড়াতাড়ি চাঁদে পৌছোতে পারত চন্দ্রযান-২।

এরআগে চীন ও আমেরিকা পাঠিয়েছিল তাদের স‍্যাটালাইট, ৪-৫ দিনের মধ‍্যেই ল‍্যান্ড করেছিল। আর ভারতের লাগবে ৪২ দিন। চাঁদের কক্ষপথে ঢুকে গেলেও চিন্তা থাকবে, একটু ভুলচুক হলেই অনন্ত কাল ধরে ঐ কক্ষপথেই ঘুরতে থাকবে । আবার ল‍্যান্ড নিয়েও চিন্তায় আছে বলে জানিয়েছে, ইসরোর বিজ্ঞানীরা।।