ফুলকপি না ব্রকলি কোনটি শরীরে অব্যর্থ কাজ করে

256
ফুলকপি না ব্রকলি কোনটি শরীরে অব্যর্থ কাজ করে

ব্রকলি, ফুলকপি, বাঁধাকপি- এই ধরনের পত্রল সবজিগুলো উদ্ভিদ-বিজ্ঞানের ভাষায় ক্রুসিফেরাস গোত্রের অন্তর্ভুক্ত। এই ধরনের সবজি বিভিন্ন খনিজ উপাদানে ভরপুর থাকে যা শরীরের জন্য উপকারী।

ব্রকলি ও ফুলকপি-ও সেই হিসেবে নানান অত্যাবশ্যকীয় খনিজ উপাদান এবং ভিটামিনে ভরপুর।

তবে কোনটা বেশি উপকারী সেই তথ্যই জানানো হল পুষ্টিবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে।

স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাসের জন্য ফুলকপি ও ব্রকলি দুটাই বেশ জরুরি। এরা দেখতে অনেকটা এক রকম হলেও সম্পূর্ণ এক নয়। রয়েছে আলাদা স্বাস্থ্যোপকারিতা।

দুই সবজিতেই ক্যালরি কম ও সাধারণ কিছু পুষ্টিমান যেমন- ফোলাইট, ম্যাগনেসিয়াম, আঁশ, প্রোটিন এবং ভিটামিন রয়েছে।

তবে পুষ্টির পরিমাণে এবং চাষ পদ্ধতির কারণে দুটি সবজির মধ্যে পার্থক্য রয়েছে।

ব্রকলি উচ্চ ফোলাইট সমৃদ্ধ এবং এতে ফুলকপির চেয়ে ক্যালরির পরিমাণ বেশি। তাই যারা ওজন কমাতে চায় তাদের জন্য ফুলকপি আদর্শ। হৃদয় ভালো রাখতে প্রয়োজন লোহিত কনিকা যা তৈরিতে ফোলাইট সাহায্য করে

ব্রকলি উচ্চ ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ। স্বাস্থ্যকর ক্যালসিয়াম বাড়তি চর্বি কমায় এবং হাড়ের স্বাস্থ্য ভালো রাখে।

ফুলকপি ও ব্রকলি উচ্চ ম্যাগনেসিয়াম সমৃদ্ধ যা হাড়ের স্থায়িত্ব বাড়ায়। তাই যাদের আর্থ্রাইটিস বা অন্যান্য হাড়ের সমস্যা আছে তাদের জন্য ব্রকলি ভালো।

ব্রকলিতে থাকে নানান ভিটামিন। যেমন- এ, সি, কে। তাই সুষম খাবার তৈরিতে একে আদর্শ সবজি হিসেবে ধরা হয়।

অন্যদিকে, ফুলকপিতে ভিটামিন ‘এ’ নেই এবং ব্রকলির তুলনায় ভিটামিন ‘কে’ এবং ‘সি’ কম থাকে।

চোখের দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখতে ভিটামিন ‘এ’ প্রয়োজন। ভিটামিন ‘সি’ হৃদয় ও ত্বক ভালো রাখতে সাহায্য করে। এটা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সরবারহ করে যা শরীর থেকে বিষাক্ত উপাদান বের করে দিতে সাহায্য করে।

ভিটামিন ‘কে’ চর্বির যৌগ যা রক্ত জমাট বাঁধা দূর করে এবং হাড়ের স্বাস্থ্য ভালো রাখে।

ব্রকলির আরেকটি সুবিধা হল, এতে আছে ফাইটোনিউট্রিয়েন্ট যা ডেটক্স প্রক্রিয়ায় সাহায্য করে। এতে সামান্য স্যাচুরেইটেড ফ্যাটি অ্যাসিড এবং বেশি পরিমাণে পলিস্যাচুরেইটেড অ্যাসিড থাকে যা শরীরের জন্য উপকারী।

দুই সবজি-ই উচ্চ খাদ্যআঁশ সমৃদ্ধ যা সারাদিন পেট ভরা রাখতে সাহায্য করে। ব্রকলি রক্তের শর্করা নিয়ন্ত্রণে রাখে।

ব্রকলি এবং ফুলকপি উচ্চ প্রোটিন সমৃদ্ধ। নিয়মিত এগুলো খেলে বিপাক বৃদ্ধি পায়। আঁশ ও প্রোটিন উপাদান ফুলকপির তুলনায় ব্রকলিতে বেশি। এ কারণে, যাদের হজমে সমস্যা আছে তাদের জন্য ব্রকলি আদর্শ।

আসল বিষয় হল

পুষ্টির দিক থেকে যাচাই করলে ব্রকলি সেরা। অন্য দিকে, শরীরের সার্বিক কথা বিবেচনা করলে ফুলকপি বেছে নেওয়া ভালো। সুস্থ থাকতে এগুলোর পাশাপাশি অন্যান্য পাতাবহুল সবজি খাওয়া উচিত। দৈনিক শক্তি চাহিদা পূরণের জন্য নানান রকম সবজি থেকে পুষ্টি গ্রহণ করা উচিত।