আপনার সন্তানের দৈহিক উচ্চতা বৃদ্ধি করবে এই খাদ্যগুলো

259
আপনার সন্তানের দৈহিক উচ্চতা বৃদ্ধি করবে এই খাদ্যগুলো

সন্তানের স্বাস্থ্যগত ব্যাপার নিয়ে সব অভিভাবকই উদ্বিগ্ন থাকেন। বিশেষ করে শিশুদের দৈহিক উচ্চতার ব্যাপারে বিভিন্ন মন ভোলানো গল্পের বিজ্ঞাপনে আকৃষ্ট হয়ে অনেক অভিভাবকই বাজার থেকে সেসব পণ্য কিনে আনেন। কিন্তু এসব পণ্যের গুণগত মান নিয়ে হামেশাই প্রশ্ন উঠে।

প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় যদি পুষ্টির অভাব থাকে তাহলে উচ্চতায় ঘাটতি থাকবেই। কিন্তু প্রকৃতি থেকে পাওয়া খাদ্যের মাধ্যমেই আপনার শিশু পেতে পারে বাড়ন্ত শরীর। খাদ্যতালিকায় কিছু নিয়মনীতি মেনে চলা ও কিছু পরিবর্তনে সহজেই শিশুর উচ্চতা বাড়াতে সাহায্য করতে পারে। টিনএজ বয়সে প্রতিদিনই পাতে কিছু বিশেষ সবজি রাখতে হবে। শিশুদের উচ্চতা বাড়াতে চিকিৎসকরা বেশ কিছু সবজি খাওয়ানোর পরামর্শ দেন।

সয়াবিন:- সয়াবিনের প্রোটিন হাড়ের মজবুতিতে খুব কার্যকর। এক বাটি ডালের চেয়েও বেশি প্রোটিন রয়ছে ৫০ গ্রাম সয়াবিনে। হাড়ের গঠন মজবুত করে উচ্চতা বাড়ায় সয়াবিন।

মটরশুঁটি:- মটরশুঁটিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন, লুটেন, প্রোটিন ও ফাইবার আছে যা শরীরের স্বাভাবিক বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। তবে এই ধরনের সবজি টাটকা কিনুন। প্যাকেটজাত কড়াইশুঁটিকে সংরক্ষণ উপযোগী করে তোলার জন্য সব সময় এ সব উপাদান থাকে না।

পালং শাক:- এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে খনিজ, ভিটামিন, ফাইবার। এই সব উপাদানগুলোই উচ্চতা বাড়ায়। নিয়মিত পালং শাক রাখুন খাদ্যতালিকায়।

ঢ্যাঁড়স:- ঢ্যাড়শে আছে ভিটামিন, মিনারেল, কার্বোহাইড্রেট, জল ও ফাইবার। এর ফাইবার গ্রোথ হরমোনকে সক্রিয় করে তুলে উচ্চতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

ব্রকোলি:- এটি উচ্চতা বৃদ্ধির হরমোনের কার্যক্ষমতা বাড়ায়। অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট, ভিটামিন সি, আয়রন এই সব পর্যপ্ত পরিমাণে থাকায় উচ্চতা বৃদ্ধিতে কাজে আসে ব্রকোলি।

শালগম:- উচ্চতা বৃদ্ধিতে অন্যতম সাহায্যকারী সবজি এই শালগম। এতে আছে ভিটামিন, মিনারেল, ফাইবার, প্রোটিন, এবং ফ্যাট। চিকিৎসকদের মতে, শালগমের ফাইবার উচ্চতা বৃদ্ধির জন্য কার্যকর।