জেনে নিন খেজুর-কিশমিশের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাগুলি

360
জেনে নিন খেজুর-কিশমিশের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাগুলি

কিশমিশে প্রচুর পরিমাণে আয়রন রয়েছে। এ কারণে নিয়মিত এটি খেলে শরীরে লোহিত রক্ত কণিকার উৎপাদন বেড়ে যায়। ফলে রক্তশূন্যতা দূর হয়।

বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, খেজুর খাওয়ার পাশাপাশি যদি নিয়মিত এই ফলটির পাতা খাওয়া যায়, তাহলে শরীরের ভিতরে এমন কিছু উপাদানের মাত্রা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে যে দৃষ্টিশক্তির উন্নতি ঘটে। সেই সঙ্গে রাতকানাসহ অন্যান্য চোখের রোগের প্রকোপও কমে।

কিশমিশে উপস্থিত পটাশিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম শরীরে প্রবেশ করার পর রক্তে অ্যাসিডিটির মাত্রা কমতে সময় লাগে না। ফলে শরীর চাঙ্গা হয়ে ওঠে। সেই সঙ্গে হজমশক্তি বাড়ে । নিয়মিত কিশমিশ খেলে ত্বকের ক্ষতি রোধ করা যায়।

একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে, নিয়মিত খেজুর খেলে দেহের ভিতরে পটাশিয়ামের মাত্রা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে, যার প্রভাবে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে চলে আসে।