৩০ পার হয়ে গেলে এই গুলো থেকে বিরত থাকুন

283
৩০ পার হয়ে গেলে এই গুলো থেকে বিরত থাকুন

বয়স কারো জন্য থেমে থাকে না এটাই বাস্তব ।আর বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের দৈহিক চাহিদাগুলিকে আমদেরই নিয়ন্ত্রণে রাখতে হয় । আর দৈহিক চাহিদার মধ্যে খাবার দাবার নির্ভর করে।

ফ্লেভার দেয়া দই: ধীরগতিতে উত্পন্ন হয় বয়স ৩০-এর পর কোলাজেন। এলাস্টিসিটি কমে যায় ত্বকের।ত্বকের পক্ষে ক্ষতিকর ফ্লেভার দেয়া দইয়ে চিনির মাত্রা বেশি থাকে ।

আইসড কফি: সারা দিন সূর্যরশ্মির কারণে ত্বকের যে ক্ষতি হয়, রাতে ঘুমানোর সময় তার অনেকটাই ঠিক হয়ে যায় । কিন্তু গরমে আরাম পেতে যখন আইসড কফি পান করা হয়, তখন ক্ষতি হয় দুভাবে।

কোলা: কোলা খাওয়ার অভ্যাস বদলাতে হবে? বয়স ৩০-এর পর খাদ্যতালিকা ও খাদ্যাভ্যাসের দিকে বিশেষ নজর দেয়া প্রয়োজন। ক্যান্সার উত্‍পাদনকারী উপকরণ কোলা তৈরিতে ব্যবহার করা হয়। তাছাড়া এতে থাকে প্রচুর পরিমাণে চিনি।

প্রথমত, স্ট্র দিয়ে পান করার ফলে তা ঠোঁটের আশপাশে বলিরেখা ফেলতে পারে। দ্বিতীয়ত, কফির মধ্যকার ক্যাফেইন রাতে ঘুমের ব্যাঘাত ঘটায় বলে ত্বক সেভাবে সুস্থতা ফিরে পায় না।

তাই ক্লান্তি কাটাতে আইসড কফি না পান করে গরম গ্রিন টি পান করুন। গ্রিন টি ত্বকের ক্ষতি প্রতিরোধ করে ও ত্বকের এলাস্টিসিটি ধরে রাখে। পাশাপাশি যারা ওজন কমানোর কথা ভাবছেন, তাদের জন্যও উপকারী গ্রিন টি।