অল্প বয়সে মা হলে কি মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে দেখে নিন..

265
অল্প বয়সে মা হলে কি মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে দেখে নিন..

২০ থেকে ২৪ বছরটা পার করে মা হওয়াই শ্রেয়। গবেষণায় দেখা যাচ্ছে ২০ থেকে ২৪ বছর বয়সে মা হলে মাঝ বয়সে নানা সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। প্রথমবার মা হওয়ার জন্য সবচেয়ে ভালো সময়, ২৫ থেকে ৩৫ বছর বয়স।

মা হওয়া কি মুখের কথা? কিন্তু মা হওয়ার পরও তো একটা জীবন আছে। আর সেই জীবনটা সুস্থ কাটাতে প্রথম সন্তানের জন্ম দেওয়ার জন্য একটু সময় দেওয়াই ভালো। খুব দেরি না করলেও কমপক্ষে ২০ থেকে ২৪ বছরটা পার করে মা হওয়াই শ্রেয়। এমনটাই বলছে সাম্প্রতিক গবেষণা।

সেই গবেষণায় দেখা যাচ্ছে ২০ থেকে ২৪ বছর বয়সে মা হলে মাঝ বয়সে নানা সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। সকলের জন্যই এটা সত্যি না হলেও বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এটা লক্ষ্য করা গেছে। তবে গবেষণা একটা কথা পরিষ্কার বলছে, মহিলাদের মাঝ বয়সের স্বাস্থ্য নির্ভর করে তাদের বৈবাহিক জীবনের ওপর এব‌ং তারা কবে প্রথম সন্তানের জন্ম দিলেন।

গবেষণা বলছে, যৌবনের সন্ধিক্ষণে মা হওয়া বরং কম ঝুঁকির। টিন এজে মানে ১৫ থেকে ১৯ বছর বয়সে যাঁরা প্রথম সন্তানের জন্ম দিয়েছেন তাদের তুলনায় ২০ থেকে ২৪ বছর বয়সে প্রথমবার মা হওয়া মহিলারা মাঝ বয়সে বেশি ভোগেন।

নিউ ইয়র্কের ওই সমীক্ষা নিয়ে আমেরিকার ওহিও স্টেট ইউনিভার্সিটির পক্ষ থেকে ক্রিস্টি উইলিয়ামস বলেন, এতকাল খালি ভাবা হত নাবালিকারা মা হলে তাদের স্বাস্থ্য কেমন হবে তা নিয়ে। কিন্তু দেখা যাচ্ছে তাদের থেকেও বিপদ বেশি সদ্য যৌবনপ্রাপ্তাদের।

সমীক্ষার বক্তব্য অনুযায়ী মাঝ বয়সে সুস্থ সবল থাকতে হলে প্রথমবার মা হওয়ার জন্য সবচেয়ে ভালো সময়, ২৫ থেকে ৩৫ বছর বয়স। আর ২০ থেকে ২৪ বছর বয়সটা এড়িয়ে যাওয়াই ভালো।