চারমুখী রুদ্রাক্ষের গুণাগুণ ও ব্যবহারের ফলাফল, জেনে নিন

1923
আমাদের প্রকৃতিতে সাধারণত একুশ রকমের রুদ্রাক্ষ পাওয়া যায়। তেরো মুখী রুদ্রাক্ষ সহজলভ্য কিন্তু চৌদ্দ থেকে একুশ মুখের রুদ্রাক্ষ বিরল। তবে সাধারণত তিন চার পাঁচ ও ছয় মুখী রুদ্রাক্ষের ব্যবহার বেশি।হিন্দু শাস্ত্র মতে রুদ্রাক্ষের অর্থ হলো শিবির তৃতীয় চোখ তাই রুদ্রাক্ষ ধারণ করলে সাধারণত যে কোনো সমস্যা সহজেই মিটে যায় তবে রুদ্রাক্ষ বিশেষে তাঁর আলাদা আলাদা গুণাগুণ এবং ধারণের ফল রয়েছে। তাই জেনে নেওয়া যাক চার মুখের রুদ্রাক্ষের
গুণাগুণ ও তাঁর ধর্মের ফল কী হয়-
1) চার মুখের রুদ্রাক্ষের মধ্যে ব্রহ্মার সমস্ত শক্তি নিহিত আছে তাই এটি ধারণ করলেই যে সমস্ত পড়ুয়ার পড়া শুনে অমনোযোগ সে ক্ষেত্রে সমস্যা মিটে যায়।
2) তবে শুধু ধারণ করাই নয় দরিদ্র বা দুঃস্থ কোনও ব্যক্তি এই রুদ্রাক্ষ পুজো করলেই শীঘ্রই আর্থিক কষ্ট থেকে মুক্তি পায়।
3) এই রুদ্রাক্ষ ধারণ করলে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত যে কোনো ব্যক্তি স্বচ্ছলতা ফিরে পান।
4) এই রুদ্রাক্ষ গোড়ায় থাকলেই শত্রুপক্ষ কোনও ক্ষতি করতে পারে না।
5) চারমুখী রুদ্রাক্ষ সংসারের শ্রীবৃদ্ধি ঘটায় এবং বহু জন্মের পাপ খণ্ডন করতে সাহায্য করে।