সমুদ্রের ৬০ ফুট গভীরে হলো মালাবদল

4586

সময়ের সাথে সাথে সবকিছুই পরিবর্তন ঘটছে, এমনকি বিয়ের ধরণও।মানুষ এখন নিজেদের বিয়েকে চিরস্মরণীয় করে তোলার জন্য অনেক কিছুই করে থাকে। সম্প্রতি এক দম্পতির বিয়ে নিয়ে সাক্ষী থাকলো কোয়েম্বাটুর। কারণ এই ধরনের অভিনব বিয়ে এর আগে দেখা যায়নি। তারা নিজেরা সমুদ্রের তলায় ৬০ ফুট নিচে মালা বদল করলেন, যা দেখে হতবাক সবাই। সমুদ্রের তলায় বিয়ে করেছে বলেই যে নিয়মের ব্যঘাত ঘটবে তা কিন্তু নয়। তারা একেবারে পুরোহিতের দেওয়ার সময় মতোই দিয়ে সেরেছে।

সেই কারণেই তারা আগের থেকেই সমুদ্র সৈকতে দাঁড়িয়ে ছিলেন। তামিলনাড়ুর নীলকরাই সমুদ্রের নিচে তারা বিয়ে সেড়েছে, সময় হওয়া মাত্রই একেবারে সমুদ্রের মধ্যে ঝাঁপিয়ে পরেছে তারা, যান তাদের পরণে ছিল বিয়ের কাপড়।

কনের নাম শ্বেতা, তিনি একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার।তাকে তার স্বামী সমুদ্রের তলায় বিয়ে করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন। শুনে অনেকটাই অবাক ও ভয় পেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু স্বামীর কাছ থেকে সমস্ত কিছু বুঝে শেষ পর্যন্ত সমুদ্রের তলায় এই অভিনব বিয়ে করতে রাজি হয় সে। কোয়েম্বাটুর এর বাসিন্দা শ্বেতা।

চিন্নাদুরাই যিনি শ্বেতার বর, তিনি জানায় ছোটবেলা থেকেই তিনি সাঁতার কাটতে বেশ আগ্রহী। ১২ বছর থেকেই তিনি স্কুবা ডাইভিং করছেন। তিনি জানায় , যারা আমাকে সাঁতার শিখিয়েছে তারাই এই অভিনব বিয়ে করার কথা জানায় যেটা আমার খুব পছন্দ হয়েছিল।আর তারপরের কথা আমরা সবাই জানি।