জেনে নিন বহু পুরানো এই ইতিহাস, সমগ্র বিশ্বে ভ্যাক’সিনের প্ৰথম মডেল ছিলেন একজন ভারতীয় রানী

14

সম্প্রতি বিবিসির একটি রিপোর্টে কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডক্টর নাইজেল চ্যালেন্স দাবি করেছেন যে, স্মল পক্স এর ভ্যাকসিন প্রথম প্রচার করেছিলেন একজন ভারতীয় নারী তিনি একজন রানী ছিলেন। সেই রানীর নাম ছিল দেবজমনি। আসলে 2007 সালে একটি ছবি নিলামে উঠেছিল সেই ছবিতে তিনজন নারী ছিল প্রথমে মনে করা হয়েছিল দেবজমনি সহ দুজন এই ছবিটিতে ছিল তারা হয়তো সেই যুগের বাইজি ছিলেন। পরে অনেক গবেষণা করার পর জানা যায় তিনি বাইজি ছিলেননা। তারা প্রত্যেক ভারতীয় রানী ছিলেন। অর্থাৎ তিনজনেই রাজা কৃষ্ণরাজ তৃতীয়ের স্ত্রী ছিলেন।

গবেষণায় উঠে আসে 1885 সালে তিনি ওয়াদিয়া রাজা কৃষ্ণরাজ তৃতীয় এর সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। ইতিহাসে যখন মানুষের মধ্যে স্মল পক্স মহামারী দেখা যায়। তখন একজন ব্রিটিশ ডাক্তার সেই রোগের ভ্যাকসিন তৈরি করেছিলেন। কিন্তু তখন সাধারণ মানুষের কাছে ব্রিটিশরা দুচোখের বিষ অর্থাৎ শত্রু ছিলেন। তারা ব্রিটিশদের একদম বিশ্বাস করতেননা ।তাই সাধারণ মানুষ ভ্যাকসিন নিতে চাইতেননা। সেই দিক থেকে ওয়াদিরা সাধারণ মানুষের কাছে খুবই বিশ্বাসযোগ্য ছিলেন। তাই ব্রিটিশরা রানী দেবজমনিকে এই কাজে লাগিয়েছিলেন ।

ইতিহাসে রানী দেবজমনির স্মল পক্স রোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন। তখন ব্রিটিশদের কাছ থেকে সেই ভ্যাকসিন নিয়ে তিনি সুস্থ হয়েছিলেন। 2007 সালে যে চিএ বিক্রি হয়েছিল। সেই চিএতে স্পষ্ট তিনি সাদা শাড়ী তার হাত দিয়ে সরাচ্ছে এবং তার স্মল পক্সের দাঁগ দেখাচ্ছে। তিনি তার নিজের শাড়ি এইভাবে সড়াতে একটুও সম্মানিত বোধ করেনি সেই যুগের মহিলা হওয়া সত্বেও। ইষ্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি এই চিএ এঁকেছিলেন, যাতে সাধারণ মানুষের কাছে প্রচার করতে পারেন রানি দেবজমনি ভ্যাকসিন নিয়ে সুস্থ হহয়ছিলেন। অবশ্য গবেষণা করে এই কথা জানা গিয়েছে রানী দেবজমনির পুজ থেকেই ওই ভ্যাকসিন তৈরি করা হয়েছিল। অর্থাৎ বিশ্বের প্রথম ভ্যাকসিন সৃষ্টিকর্তা হলেন একজন ভারতীয় নারী।