রবিনা ট্যান্ডনকেও ভালোবাসার প্রস্তাব দিয়েছিলেন অজয় দেবগণ, কেন টেকেনি সম্পর্ক জানুন

22

পারফেক্ট ম্যাচ যদি কারোর হয় তাহলেও অজয় দেবগন এবং কাজলের।শাহরুখ খানের সঙ্গে ডজনখানেক সিনেমাতে অভিনয় করলেও তিনি মন দিয়েছিলেন অজয় দেবগন কে। ১৯৯৯ সালের ২৪ শে ফেব্রুয়ারি তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন।তবে কাজলের প্রথম প্রেম হলেও অজয় দেবগনের কিন্তু প্রথম প্রেম কাজল ছিলেন না।বিবাহের আগে তিনি দুই রমণীর প্রেমে রীতিমতো হাবুডুবু খাচ্ছেন। যদিও কোনো সম্পর্ক বেশি দূর এগোয়নি। চলুন আজকে জেনে নিই, অজয় দেবগনের জীবনে ঘটে যাওয়া কিছু অজানা কথা।

প্রথমে অজয় দেবগন কে ইন্ডাস্ট্রি কেমন ভাবে গ্রহন করতে চায়নি। চোখের মারকাটারি চাহনি ছাড়া আর কিছু সেরকম সৌন্দর্য ছিল না তার। একটা সময় অন্যান্য নায়কদের থেকে অনেকটাই পিছিয়ে ছিলেন তিনি। যদিও এখন সেই সব কিছু অতীত। গোলমাল হোক অথবা সিংঘম, সবকিছুতেই সমানভাবে সাবলীল অজয় দেবগন।

ইন্ডাস্ট্রিতে পা রাখার পর তার সম্পর্কে জড়িয়ে যায় রবীনা ট্যান্ডন এর সঙ্গে। তাদের সম্পর্ক এতটাই এগিয়ে গিয়েছিল যে অজয় দেবগন যখন প্রত্যাখ্যান করে রবিনা কে, তখন নাকি অভিনেত্রী আত্মঘাতী হতে গিয়েছিলেন।অজয় দেবগনের দেওয়া একটি প্রেমপত্র এখনো পর্যন্ত তার কাছে আছে।কিন্তু অজয় দেবগন সেই সব কিছু অভিযোগ নস্যাৎ করে দিয়ে অভিনেত্রীকে পাগলে বলে আখ্যা দেন। সকলের সামনেই তিনি বলেন যে, রবিনার উচিত কোনো মনোবিশেষজ্ঞ সঙ্গে কনসাল্ট করা।

তবে এখানেই শেষ নয়। কপূর খান্দানের বড় মেয়ে কারিশমা কাপুরের সঙ্গে তার সম্পর্ক জড়িয়ে গিয়েছিল। অজয় দেবগনের কাছ থেকে প্রেমের প্রস্তাব পেয়েও নস্যাৎ করে দেন কারিশমা কাপুর। তিনি বলেছিলেন যে, এত কম বয়সে বিয়ে করা একেবারেই সম্ভব নয় তার। তিনি তখন ক্যারিয়ারের ফোকাশ করতে চাইছিলেন।

এরপর কাজলের সঙ্গে অজয়ের প্রথম দেখা হয়েছিল হালচাল ছবির শুটিংয়ে।প্রথম দর্শনে প্রেম না হলে ও আস্তে আস্তে তাদের মধ্যে সম্পর্ক গভীর হয়। সে সম্পর্ক শেষ হয় একেবারে বিয়ে দিয়ে। আজও তারা সমান ভাবে একে অপরের পাশে দাঁড়িয়ে রয়েছেন। তবে বিয়ের পরেও একবার কঙ্গনা রানাওয়াত এর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ার গুঞ্জন উঠেছিল অজয় দেবগনের। সেই সময় নাকি কাজল তার ছেলেমেয়েকে নিয়ে বাপের বাড়ি চলে যাবার হুমকি দিয়েছিল। তাই বেচারা অজয় দেবগন আর সেই সম্পর্কে এগোতে সাহস পায়নি।তবে সম্পর্কে র বিভিন্ন টানাপোড়েনের মধ্যে এখনো পর্যন্ত সবথেকে দুর্দান্ত জুটি এই দুজনের, সেটা এক কথায় স্বীকার করেন সকলে।