হলুদ বি’কি’নি, চোখে চশমা, পুরানো আন্দাজে মল্লিকা শেরাওয়াত

16

উনিশ শতকের ছেলেমেয়েদের কাছে নিষিদ্ধ সিনেমা হিসেবে পরিচিত ছিল মার্ডার।সেখানে মল্লিকা শেরাওয়াত এবং ইমরান হাসমির এমন কিছু অন্তরঙ্গ দৃশ্য ছিল যেগুলি বাবা মায়ের সামনে দেখা সমীচীন মনে করতো না কেউ। রীতিমতো লুকিয়ে দেখতে হতে সেগুলি। এখনকার মতো সোশ্যাল নেটওয়ার্কের রমরমা ছিলনা তখন। তাই সিডি এবং ডিভিডি ছিল ভরসা। বাড়িতে বড়দের চোখের আড়ালে সেই সমস্ত সিনেমা দেখতে হতো আমাদের।

তাই আমাদের কাছে মল্লিকা শেরাওয়াত একটি ইমোশন।মল্লিকা শেরাওয়াত এমন একজন অভিনেত্রী যিনি আমাদের সঙ্গে প্রথম পরিচয় করিয়েছিলেন বোল্ড সিনেমার সাথে। তার সাহসী অভিনয় দেখে আমরা রীতিমতো হতবাক হয়ে গিয়েছিলাম। তখন এতটা সাহসী অভিনয় কোন অভিনেত্রী করতেন না।

তবে চিরকাল পার্শ্বচরিত্রে অভিনয় করতে দেখা গেছে তাকে। সেই ভাবে অভিনয় জগতে নাম করতে পারেনি তিনি।তবে মল্লিকা শেরাওয়াত যে একটি আলাদা অস্তিত্ব তারা এক বাক্যে স্বীকার করেন সকলে।তাই বর্ষশেষে আরো একবার সকলকে নিজের অস্তিত্ব বুঝিয়ে দেবার জন্য এলেন মল্লিকা শেরাওয়াত।মল্লিকা শেরাওয়াত সম্প্রতি একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করেছেন। ছবিটি সম্প্রতি তার গোয়াতে ঘুরতে যাবার।সেখানে একটি হলুদ রঙের বিকিনি পরে ছবি পোস্ট করেছেন তিনি। ছবিতে ব্যাক সাইট থেকে তোলা।

তবে পিছন থেকেই যেন তাকে অপূর্ব দেখতে লাগছে। তার নির্মেদ শরীর বুঝিয়ে দিচ্ছে প্রতি পদক্ষেপে, এখনও হারিয়ে যায়নি মল্লিকা শেরাওয়াত।ছবিটি ইতিমধ্যে বহু মানুষ দেখেছেন এবং পছন্দ করেছেন। বর্ষশেষে আমাদের এত সুন্দর একটি ছবি উপহার দেবার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন অনেক মানুষ। এখনো অভিনেত্রীকে যে ভালবাসার লোকের অভাব নেই তা এই ছবি ভাইরাল হতেই বোঝা গেছে।