অনুরাগীদের মনে শিহরণ জাগালেন টেলি কুইন মনামী

11

দিনে দিনে সব মানুষেরই বয়স বৃদ্ধি পাচ্ছে। সবার বয়স বৃদ্ধি পেলেও মনামী ঘোষ কে দেখে মনেই হয় না যে তার বয়স বাড়ছে। বাংলার টেলি জগতের অতি পরিচিত অভিনেত্রী হলেন মনামি ঘোষ।মনামীর বয়স মত বাড়ছে ততই মনে হচ্ছে তার রূপ যেন ঝরে ঝরে পড়ছে। এই ৪০ বছর বয়সেও তাঁর শরীরের উষ্ণতা আঠারো বয়সের মেয়েকেও বলবে সরে দাঁড়ানোর জন্য। এই শীতকালে অভিনেত্রীর অনুগামীর মনামীর গ্ল্যামারাস লুকে গা গরম করছেন।বহুদিন থেকে ছোট বড় পর্দায় মামীকে দেখে আসছে বাংলার মানুষজন। অভিনয়ের পাশাপাশি তিনি সোশ্যাল মিডিয়াতেও বেশ সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। অনুগামীদের উদ্দেশ্যে তিনি কিছু নাচের ভিডিও আপলোড করেন সোশ্যাল মিডিয়াতে।

অভিনয়, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও পোস্ট ছাড়াও তিনি বেশ ঘুরতে ভালোবাসেন।কিছুদিন আগে তিনি মুম্বাইতে ঘুরতে গেছিলেন সেখানে নিজের স্টাইলে তোলা কিছু ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করেন। নীল পোশাকে সজ্জিত অভিনেত্রীর বেশ কিছু ছবি এখন সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল।নীল রঙের স্কীনফিট শর্ট ফ্রক তার সঙ্গে খোলা চুল আর রোদচশমা পড়ার ফটো বহু পুরুষদের মন ছুঁয়ে গেছে। নীল রঙের শর্ট বডিকন বলছে মনামী একজন ছিপছিপে মেদহীন টানটান চেহারার অধিকারী। এই পোশাক পরে তিনি কখনো গাইছেন আবার কখনো নাচ করছেন আবার কখনো বা বোল্ড ফটোশুট ব্যস্ত।

শাড়ি, স্কার্ট ছাড়াও সব পোশাকেই তিনি নিজেকে অনুরাগীদের সামনে তুলে ধরছেন। মনামি ঘোষর মতে এখন ফ্যাশন মানেই সাবলীল থাকা সেই পন্থা অনুসরণ করে চলেছেন তিনি। এবার মিঠুন চক্রবর্তী ও তারকা সাংসদ দেবের সাথে মনামি আবার স্কিন শেয়ার করবেন।খুব শীঘ্রই ষ্টার জলসায় আসতে চলেছে ছোটদের ‘ ডান্স বাংলা ডান্স জুনিয়রের ‘দ্বিতীয় সিজেন। সেখানে বিচারকের ভূমিকায় থাকছেন মনামী ঘোষ। মনামী ঘোষ ছাড়া বিচারকের আসনে থাকছেন মিঠুন চক্রবর্তী ও দেব।