গাড়ির বিমা,নিয়ে চিন্তায় আছেন? তবে বিমা করার সহজ পদ্ধতি জেনে নিন

14

গাড়ি কেনা এক খরচা, সাথে আবার বিমা খরচা যেটা অনেক। তাহলে কি করা যায়? চিন্তা নেই উপায় আছে। আপনি বিমা করার জন্য সহজ রাস্তা অবলম্বন করতে পারেন, আপনাকে প্রথমেই বিশ্বস্ত বিমান অ্যাগ্রিগেটরের সাহায্য নিতে পারবেন। আর সেখান থেকেই আপনি বিমা কোম্পানি গুলোর তুলনা করতে পারবেন। যার ফলে অনেকটাই দাম কম পাবেন বিমার ক্ষেত্রে।

এখানেই শেষ না কারণ আপনি গাড়ির বিমা করার পরে প্রিমিয়াম করার ক্ষেত্রেও বিভিন্ন উপায় অবলম্বন করতে পারেন যেটা কিনা আপনাকে অনেকটাই প্রিমিয়াম কম করার ক্ষেত্রে সাহায্য করবে। আসলে বিভিন্ন ক্ষেত্রে ছাড় নির্ভর করে আপনি গাড়ি চালাতে পারেন কিনা সেটার রেকর্ড, আপনি কোন কাজের সাথে যুক্ত, সেইসব মিলিয়ে এই ছাড় নির্ভর করে ।

আসলে গাড়ির বিমার ক্ষেত্রে বিভিন্ন রকম কিছু নির্ভর করে। যার মধ্যে স্হানটাও খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যদি আপনি কোনো দুর্ঘটনা বহুল জায়গায় থাকেন তাহলে আপনার বিমার হার বেশী হবে। সেই জন্য আপনাকে বিমার জন্য অনলাইনে সুলুক সন্ধান করতে হবে। আসলে আপনাকেও নিজের থেকে কিছু বিষয়ে ছাড় দিতে হবে, যার ফলে প্রিমিয়ামের হার বেশী হবে।

এদিকে শেষে বলা হয়, যারা এর আগে গাড়ির বিমার নিয়ে ক্লেম করেন নি। যারা দারুণ গাড়ি চালাতে পারে, তাদের নিজের থেকে কিছুক্ষেত্রে ছাড় রাখতে হবে, যার ফলে প্রিমিয়াম রেট কম হবে। যদি আপনি আপনার গাড়িতে কিছু যোগ করেন, তাহলে আপনাকে সেটা জানাতে হবে বিমান দফতরে, কারণ পরে যখন ক্লেম করবেন তখন অনেক কিছুই যোগ করে দেওয়া হবে যার সম্পর্কে আপনার কোনো ধারণাই থাকবে না।