জেনে নিন মা ঠান্ডা খাবার খেলে কি শিশুর ক্ষতি হবে?????

233
জেনে নিন মা ঠান্ডা খাবার খেলে কি শিশুর ক্ষতি হবে?????

মা ঠান্ডা খাবার খেলে বা ঝাল মসলা খাবার খেলে শিশুর ক্ষতি হয়, এমন একটি ধারণা অনেকের মধ্যে প্রচলিত রয়েছে। তবে এসব ধারণা কি সঠিক? চলুন জেনে নেওয়া যাক-

আসলে মাকে কিন্তু পুষ্টি বাড়াতে হবে। মা ও মায়ের পার্শ্ববর্তী যাঁরা রয়েছেন, তাঁদের মনে রাখতে হবে মাকে যেন ঠিকমতো খাবার দেওয়া হয়। মাকে বেশি করে খাবার খেতে হবে। যেটি আগে খেত, তার তুলনায় একমুঠ ভাত বেশি খেতে হবে। এক চামচ ডাল বেশি খাবে। এভাবে বেশি বেশি পুষ্টিকর খাবার খাবে। অনেক সময় বাড়ির বড়রা মনে করেন যে মাকে ঠান্ডা খাওয়ানো যাবে না, বাচ্চার ঠান্ডা লাগবে। মাকে ঝাল খাওয়ানো যাবে না। বাচ্চার পেটে সমস্যা হবে। এগুলো খুবই ভ্রান্ত ধারণা। মা সবই খেতে পারবে। ঠান্ডা গরম, ঝাল, মিষ্টি, টক সবকিছু খেতে পারবে।

কিছু কিছু খাবারের কারণে বাচ্চার গ্যাস হয়, বড়দের মত বাচ্চাদের কিছু কিছু সবজিতে পেটে গ্যাস হতে পারে। যেমন- ব্রকলি এবং বাঁধাকপি। এগুলো যদি খুবই স্বাস্থ্যকর এবং খাওয়া উচিত তারপরও চেষ্টা করুন যাতে খুব বেশী পরিমাণে খাওয়ানো না হয়। ছয় মাস বয়সের পর বুকের দুধের পাশাপাশি একটু বাড়তি খাবার দেওয়া হয়। এতেও অনেক সময় পেটে গ্যাস হতে পারে। এসব শিশুর বাড়তি খাবারে বিভিন্ন প্রকার ফল বা শাকসবজি দিয়ে খিচুড়ি এবং মাছ-মাংস ও ডিম থাকে। অনেক সময় খিচুড়িতে শাকের পরিমাণ বেশি হলে গ্যাস হওয়ার ঝুঁকি থাকে আবার ডালেও গ্যাস হতে পারে, এমনকি সিদ্ধ ডিমেও গ্যাস হতে পারে। তাই উচিত বাড়তি খাবার দেওয়ার সময় খাবারের দিকে নজর রাখা। যেমন- খিচুড়িতে শাক ও ডালের পরিমাণ কম দিয়ে কাঁচা কলা বা কাঁচা পেঁপের পরিমাণ বাড়িয়ে দেওয়া।