মাঝ আকাশে সোফায় বসে প্যারাগ্লাইডিং,দেখুন এক মজার ভিডিও

60

বিদেশের মাটিতে অনেকেই প্যারাগ্লাইডিং করতে খুবই পছন্দ করেন। প্যারাগ্লাইডিং হলো এমন একটি রাইডিং যা করতে রীতিমত বুকের জোর লাগে। যে কেউ প্যারাগ্লাইডিং করতে পারেনা। প্যারাগ্লাইডিং করতে গিয়ে অনেক সময় অসুস্থ হয়ে পড়েছেন অনেকে।সম্প্রতি বেশকিছু প্যারাগ্লাইডিং ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার হয়।এরই মধ্যে গত বছর বিপিন সাহু নামে এক ভারতীয় ব্যক্তির প্যারাগ্লাইডিং এর ভিডিও ব্যাপকহারে ভাইরাল হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়।বিপিনের প্যারাগ্লাইডিং করার সময় প্রাণ ভয়ে ভীত অভিব্যক্তি দেখে মজা পেয়েছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ার ইউজাররা।

সম্প্রতি তুরস্কের এক ব্যক্তির অসাধারণ প্যারাগ্লাইডিং এর ভিডিও দেখে চমকে উঠেছে নেট দুনিয়া।প্যারাসুট এর মাধ্যমে আকাশে ভাসমান অবস্থায় এই ব্যক্তি যা করে দেখিয়েছেন তা এককথায় অসাধারণ।তুরস্কের এই ব্যক্তিটির নাম হাসান কাভাল। চিরকালই তিনি প্যারাগ্লাইডিং এর মত স্টান্ট করতে পছন্দ করেন। তবে শুধু চিরাচরিতভাবে প্যারাগ্লাইডিং করে থেমে যাননি তিনি, রীতিমতো সোফায় পায়ের উপর পা তুলে বসে প্যারাগ্লাইডিং করতে দেখা যাচ্ছে তাকে।সোফার পাশাপাশি একটি টিভি নিয়ে উড়তে উঠেছিলেন আকাশে।

সোফায় বসে এবং চিপস খেতে খেতে দেখছেন তার প্রিয় কার্টুন টম অ্যান্ড জেরি।সোফার পাশে আবার লাগানো আছে ল্যাম্প।একবার তিনি যেই আকাশে ভাসতে শুরু করলেন, অমনি তিনি থেকে জুতো খুলে চটি পড়ে নিলেন। এরপর শুরু হলো তার চিপস খেতে খেতে টিভি দেখা। উড়তে উড়তে আবার কয়েকটি সেলফি তুলে নিলেন তিনি। ড্রইং রুমের মতো আনন্দ উপভোগ করে ফিরে এলেন মাটিতে।তারেই প্যারাগ্লাইডিং এর ভিডিও ব্যাপকভাবে ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সকলে তার এই ভিডিও দেখে রীতিমতো হতবাক হয়ে গেছে। চিরাচরিত প্যারাগ্লাইডিং এর ব্যাখ্যাটি কে পাল্টে দিয়েছেন এই ব্যক্তি।