যে দেশেতে কোনও সাপ নেই, কিন্তু কারণ কী? দেখুন সেই রহস্য

3119

সর্প বিহীন দেশ শুনতে খানিকটা অবাক লাগবে কারণ বিশ্বের প্রতিটি দেশেই এই বিষাক্ত প্রাণীর বসবাস রয়েছে। কিন্তু ইংল্যান্ডের পার্শ্ববর্তী একটি ছোট দ্বীপ আয়ারল্যান্ড সেখানেই নাকি কোনও সাপ নেই, বনে জঙ্গলে বা রাস্তাঘাটে সব চলাচল করতেও দেখা যায় না শুধুমাত্র কিছু ব্যক্তি শৌখিন ভাবে এবং পোষার জন্য সাপ রেখে দিয়েছেন আবার চিড়িয়াখানাতেই আছে কিন্তু গোটা আয়ারল্যান্ডের কোনও জায়গাতেই সাবকে চলাফেরা করতে দেখা যায় না তবে কেন? প্রশ্ন ওঠে এর পিছনে কোনও বৈজ্ঞানিক কাহিনী আছে নাকি রূপকথা।

যদি রূপকথার নিরিখেই সহীন দেশ হয় তাহলে গল্পটা হল সেন্ট প্যাট্রিক নামক একজন ধর্ম প্রচারক তাঁর মন্ত্রীর জেরে সমস্ত সাপকে সমুদ্রের জলে ডুবিয়ে দিয়েছিলেন। এবং গোটা আয়ারল্যান্ডকে শাপমুক্ত করেন সেই থেকে নাকি আয়ারল্যান্ডে কোনো সাপ আসতে পারেনি। কিন্তু বিজ্ঞান বলছে অন্য কথা তাঁদের মতে ধর্মযাজক সেন্ট প্যাট্রিকের পক্ষে সাপ নির্বংশ করা কোনও ভাবেই সম্ভব ছিল না ন্যাশনাল মিউজিয়াম অফ আয়ারল্যান্ডের প্রাকৃতিক ইতিহাস বিষয়ক গবেষক নাইজেল মুনা গান জানিয়েছেন আয়ারল্যান্ডে নাকি কখনওই সাব ছিল না কারণ কোনও সাপের ফসিল খুঁজে পাওয়া যায়নি।

তবে ভৌগোলিক দিক বিচার করলে দেখা যাচ্ছে আয়ারল্যান্ডের কাছে কাছে স্থলভূমির সাথে আইরিশ সমুদ্রের উপর দিয়ে এর দূরত্ব সত্তর কিলোমিটার তাই কোনও সাপের পক্ষে সাঁতার কেটে এতদূর আসা সম্ভব হতো না আবার অন্যদিকে আয়ারল্যান্ডের বরফ ও শীতল আটলান্টিক মহাসাগরে সাপেরা বসবাস করতে পারে না। তবে আয়ারল্যান্ডের ইতিহাস বলছে একসময় আয়ারল্যান্ড বা ইংল্যান্ড কোনও দেশেই নাকি সাপ ছিল না তার কারণ বরফের যুগে এই দ্বীপগুলোতে ঠান্ডা রক্তের সরীসৃপ প্রাণী সাপের বসবাসের উপযোগী ছিল না।