জানেন কি? এখন ঘরোয়া উপায়গুলির মধ্যে অনিয়মিত পিরিয়ড নিয়মিত করুন

84
জানেন কি? এখন ঘরোয়া উপায়গুলির মধ্যে অনিয়মিত পিরিয়ড নিয়মিত করুন

অনেকেই অনিয়মিত পিরিয়ড নিয়ে সমস্যায় ভোগেন। এর পিছনে রয়েছে একাধিক কারণ। চিকিৎসকরা এই সমস্যা দূর করার জন্য পিল দিয়ে থাকেন। কিন্তু এতে সাইড এফেক্ট হতে পারে। জেনে নিন কিভাবে অনিয়মিত পিরিয়ড নিয়মিত করবেন।
কাঁচা পেঁপে পিরিয়ড নিয়মিত করতে সাহায্য করে। কয়েক মাস কাঁচা পেঁপের রস খান, এতে পিরিয়ড নিয়মিত হবে। তবে পিরিয়ড চলাকালীন না খাওয়াই ভালো। ১ কাপ জলে ১ চামচ আদা কুচি করে মিশিয়ে নিন। এরপর এর সঙ্গে মিশিয়ে নিন মধু। এই মিশ্রণ দিনে তিন বার খাবেন, তবে খাওয়ার পর ফল ভালো পাবেন।

এক কাপ দুধে অল্প পরিমান কাঁচা হলুদ দিয়ে তাতে মধু মিশিয়ে নিন। এটি খেলে উপকার পাবেন। প্রতিদিন সকালে অ্যালোভেরার রস মধুর সঙ্গে মিশিয়ে খান। উপকার পাবেন, কিন্তু পিরিয়ড চলাকালীন এটি খাবেন না।
চায়ের সাথে দারুচিনি গুঁড়ো মিশিয়ে খেলে পিরিয়ড নিয়মিত হতে সাহায্য করে সাথে পিরিয়ডকালীন ব্যথা কমাতেও সাহায্য করে এটি।

পিরিয়ড অনিয়মিত হওয়ার অন্যতম কারণ মানসিক চাপ। এর জন্য প্রয়োজন ব্যায়াম এবং মেডিটেশন। এর ফলে মানসিক চাপ কমবে এবং উপকার পাবেন। এক গ্লাস জলে ২ চামচ জিরা সারারাত ভিজিয়ে রেখে সকালে খেয়ে ফেলুন। পিরিয়ড নিয়মিত করতে সাহায্য করে এটি। বেশি করে ফল এবং শাকসবজি খান। বিশেষ করে গাজর এবং আঙুরের রস যা সবচেয়ে বেশি কার্যকরী।

১ গ্লাস জলে ২ চা চামচ অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার মিশিয়ে প্রতিদিন খাবার খাওয়ার আগে খেয়ে নিন। পিরিয়ড সাইকেল নিয়ন্ত্রণে এটি সাহায্য করে। আয়রনের ঘাটতি হলেও অনিয়মিত পিরিয়ডের সমস্যা হতে পারে। এরজন্য খাবেন মুরগির মাংস, চিংড়ি, ডিম, কচু শাক, লাল শাক, পালং শাক, মিষ্টি আলু, ফুলকপি, মটরশুঁটি, তরমুজ, খেজুর, গাব, টমেটো, ডাল, ভুট্টা।