আপনি জানেন যে মনের আনন্দে কান্নাকাটি করলে ! উপকার পাবেন! বুঝতে না পারলে সুম্পর্ণ পড়ুন

92
আপনি জানেন যে মনের আনন্দে কান্নাকাটি করলে ! উপকার পাবেন! বুঝতে না পারলে সুম্পর্ণ পড়ুন

সমীক্ষায় উঠে এলো বিস্ময়কর তথ্য, একটি সমীক্ষায় উঠে এসেছে নিয়মিত কান্নাকাটি করলে নাকি শরীরের মেদ ঝড়বে। ঠিকই পড়ছেন, এটা আবার কেমন কথা তাইতো, কান্নাকাটি করলে কি ভাবে শরীরের মেদ কমবে, এটির পক্ষে যুক্তি দিয়েছেন পৃথিবীর নামকরা একজন বায়োকেমিস্ট উইলিয়াম ফ্রে, বিজ্ঞানীরা বলছেন, যখন আমরা কাঁদি তখন আমাদের শরীর থেকে কর্টিসোল নামে এক হরমোন নিঃসৃত হয়, এই হরমোনের প্রভাবে শরীরে মেদ কমতে থাকে।

এই হরমোন ওজন কমানোর জন্য বিশেষ উপযোগী। বায়োকেমিস্ট উইলিয়াম ফ্রে এ যুক্তি সমর্থন করেছেন। এছাড়া আমরা যখন আবেগের বশে কাঁদি তখন কার্ডিয়াক পেশিগুলো সচেতন হয়ে যায় ও আমাদের হৃদস্পন্দন বেশি মাত্রায় হতে থাকে। বেশি মাত্রায় হৃদস্পন্দন বেশি হবার জন্য কিছু ক্যালোরি ঝড়ে। কিন্তু কথা হলো, সমীক্ষায় কেন বলা হয়েছে, সন্ধ্যা 7 টা থেকে রাত 10 টা পর্যন্ত কাঁদলে মেদ ঝড়বে বেশি করে, সেদিকেও কিছু কারণ স্পষ্ট করে বলা হয়েছে।

বিজ্ঞানীরা বলেছেন, এই সময়ের মধ্যে কর্টিসোল হরমোন বেশি পরিমাণে ক্ষরণ হয়, এরজন্য এই সময়ের মধ্যে কান্নাকাটি করলে এই হরমোন আরো বেশি পরিমাণে নিঃসৃত হবে ফলে ফল পাওয়া যাবে খুব তাড়াতাড়ি। এই সময়কেই কান্নার জন্য উপযুক্ত সময় হিসেবে ধরা হয়েছে। তাহলে যখনই মন খারাপ হবে কান্না না আটকে কেঁদেই নিন। মন তো হালকা হবেই, এর পাশাপাশি শরীরও সুস্থ থাকবে। তাহলে কয়েকদিন চেষ্টা করে দেখতেই পারেন।