প্রেম করার খরচ ওঠাতে অভিনব পদ্ধতি অবলম্বন করলো প্রেমিক যুগল

1730

ভালোবাসার খরচ অনেক,সেই খরচ সামলাতে না পেরে প্রতারক হয়ে উঠতে হলো প্রেমিক যুগলকে।প্রেম করতে গেলে অনেক টাকার প্রয়োজন,কিন্তু সে টাকার যোগান দেবে কে,একথা চিন্তা করতে গিয়ে ঘুম উবে গিয়েছিল প্রেমিক ই প্রেমিকার।শেষে পুলিশ সেজে তোলা আদায় করতে থাকে দুজনেই।শেষে আসল পুলিশের হাতে ধরা খেতে হলো নকল পুলিশকে।

এই ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ 24 পরগনার বারুইপুরে।এলাকায় বেশ চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে।পুলিশ সূত্রে খবর, ধৃত প্রেমিক ও প্রেমিকার নাম সায়নী ঘোষ ও দীপ নাটিক।তারা এলাকায় পুলিশ পরিচয় দিয়ে তোলা তুলতো।প্রেমিকা নিজেকে পুলিশকর্মী পরিচয় দিতো ও প্রেমিক নিজেকে সিভিক ভলান্টিয়ার হিসেবে পরিচয় দিতো।বেশ কিছুদিন ধরেই এলাকার মানুষ অতিষ্ট হয়ে উঠেছিল তাদের তোলাবাজির জন্য।শেষে পুলিশে অভিযোগ জানায় স্থানীয়রা।

বারুইপুর মহিলা থানার পুলিশ কর্মীরা তদন্তে নেমে তাদের পাকড়াও করে।গতকাল সোমবার তাদের দুজনকেই আটক করা হয়।তাদের কাছ থেকে পুলিশের পোশাক ও পুলিশ লেখা একটি স্কুটি পাওয়া গিয়েছে।পুলিশের জেরার মুখে তারা জানিয়েছে,দীর্ঘদিন ধরে তারা একে অপরকে ভালোবাসে, ভালোবাসতে গেলে অনেক খরচ, নামি রেস্তেরায় খাওয়া দাওয়া করতেও প্রচুর টাকার দরকার, তাই তারা পুলিশের পোশাক ভাড়া করে তোলাবাজি চালিয়ে যাচ্ছিলো বেশ কয়েকদিন ধরে।