প্রাকৃতিক উপায়ে দূর হবে স্ট্রেচ মার্ক প্রসাধনীতে নয়

233
প্রাকৃতিক উপায়ে দূর হবে স্ট্রেচ মার্ক প্রসাধনীতে নয়

স্ট্রেচ মার্ক অনেকেরই দুশ্চিন্তার কারণ। হঠাৎ ওজন বেড়ে গেলে বা ওজন কমে গেলেও নারী-পুরুষ সবার শরীরেই এমন দাগ দেখা যায়। সন্তান ধারণের পর প্রায় অনেক মহিলার পেটে ও কোমরে এই স্ট্রেচ মার্ক আসে। শরীরে এমন স্ট্রেচ মার্ক কেবল সৌন্দর্যকে কমিয়ে দেয় তা নয়, সারা শরীরে অতিরিক্ত স্ট্রেচ মার্ক মানে শরীর তার পুষ্টিগুণও যথাযথ পাচ্ছে না। সাধারণত স্ট্রেচ মার্কের সমস্যা এলে অনেকে প্রথমে তা গুরুত্ব দিতে চাননা।

তবে এই দাগের বাড়াবাড়ি ত্বকেরও ক্ষতি করে। তাই স্ট্রেচ মার্ক বেশি হলে অবশ্যই ত্বক বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন। তবে স্ট্রেচ মার্ক অল্প থাকলে তা কিছু ঘরোয়া উপায়েই মোকাবিলা করা যায়। বাজারের বিভিন্ন ক্রিমে স্ট্রেচ মার্ক দূর করা গেলেও রাসায়নিকযুক্ত সেসব ক্রিমের পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়াও কম নয়। তাই কিছু বিশেষ ঘরোয়া উপায়ে এটি দূর করলে ত্বকের কোনো ক্ষতি হয় না। তবে জেনে নিন স্ট্রেচ মার্কের কয়েকটি ঘরোয়া উপায়

ডিমের সাদা অংশ: কুসুম বাদে ডিমের সাদা অংশ ভাল করে ফেটিয়ে নিন। এবার তা স্ট্রেচ মার্কের উপর মাখিয়ে ১৫ মিনিট রাখার পর তা গরম জল দিয়ে ধুয়ে নিন। এরপর অ্যালোভেরা জেল লাগিয়ে রাখুন সেই জায়গায়। ধীরে ধীরে হালকা হয়ে দাগ মিলিয়ে যাবে।

আলুর রস: ত্বকের যেকোনো সমস্যার জন্য আলুর রস খুব উপযোগী। স্ট্রেচ মার্কের উপর আলুর রস মাখিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে নিন। এভাবে কয়েক সপ্তাহ যত্ন নিলেই স্ট্রেচ মার্কের দাগ উঠে যাবে।

হলুদ ও সরষের তেল: হলুদ ও সরষের তেল একসঙ্গে মিশিয়ে একটি ঘন মিশ্রণ তৈরি করুন। তারপর তা স্ট্রেচ মার্কের উপর লাগিয়ে রাখুন। সপ্তাহে ৩ বার লাগালে স্ট্রেচ মার্কের দাগ এক সময় মিলিয়ে যায়।

লেবু ও চিনি: লেবু টুকরো করে কেটে তার উপর চিনি যোগ করুন। এবার চিনিসহ লেবুটিকে স্ট্রেচ মার্কের উপর ঘষতে থাকুন। চিনি গলে গেলে ভাল করে ধুয়ে নিন। এই প্রক্রিয়াটি সপ্তাহে ৪ বার করতে পারলে হালকা হয়ে উঠে যাবে স্ট্রেচ মার্ক।